প্রিটিকিন প্রোগ্রাম সমর্থনে উন্নত বিশ্বের চিকিৎসক সমাজ

সত্যি কথা বলতে কি,প্রোটিকিন ডায়েট কোন একজন সাধারণ মানুষের জন্য ফ্যাশান ডায়েট নয়।সর্বোপরি প্রোটিকিন ডায়েট বা প্রোটিকিন প্রোগ্রাম কোন একটি অর্থহীন হুজুক নয় যে,দুই দিন হইচই করে চলে যাবে।এই প্রোগ্রাম পৃথিবীর  বিভিন্ন বিশিষ্ট খাদ্য বিশারদ তথা চিকিৎসকদের অকুণ্ঠ সমর্থন পূর্ণ।আজ প্রোটিকিন প্রোগ্রাম অনুসরনের পরামর্শ দিচ্ছেন বিশ্বের চিকিৎসক সমাজের একটা বড় অংশ।

আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের সার্কুলেশন পত্রিকা (সেপ্টেম্বর ১৯৭৯) Dr.Nash বলেন,সন্দেহাতীতভাবে প্রোটিকিন প্রোগ্রাম সর্বপ্রথম হৃদ রোগ নিরাময় করতে সমর্থ হয়েছে.

মিয়ামি হার্ট ইনস্টিটিউটের Dr.Lehr বলেছেন, পৃথিবীর সব দেশে প্রোটিকিন প্রোগ্রাম অনুসরণ করলে পৃথিবী থেকে হৃদরোগ একেবারে অন্তর্হিত হবে।

কেনটাকি মেডিকেল সেন্টার ইউনিভার্সিটির Dr.J.Anderson-এর অভিমত, প্রোটিকিন প্রোগ্রাম ৩০-৯০ দিনের মধ্যেই ৮০% ডায়াবেটিস রোগীকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে আনা যায়।

বর্তমানে প্রোটিকিন প্রোগ্রাম বিশ্বের বৃহত্তম চিকিৎসা শিক্ষা কেন্দ্র ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক স্বীকৃত ও সমাদৃত।এমনকি এ বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে একটি পৃথক কেন্দ্র খোলা হয়েছে এই প্রোগ্রাম টিকে জনস্বার্থে প্রয়োগ করার জন্য।

প্রোটিকিন প্রোগ্রাম স্বীকৃতিস্বরূপ আমেরিকার সোমা লিন্ডা বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়ো-স্টাটিস্টিকস বিভাগ প্রোটিকিন লনজিবিটি সেন্টারের ৮৯৩ জন রোগীর স্বাস্থ্য উন্নতি পর্যালোচনা করে জানুয়ারি ১৯৭৬ থেকে অক্টোবর ১৯৭৭ এই দীর্ঘ সময় ধরে।

Check Also

পুরুষের গুণাগুণ বিচার

সর্বতােভাবে সুখী হয় সেই ব্যক্তিই যার কণ্ঠস্বর ,  বুদ্ধি ও নাভি গভীর । হয় ।  …